ঈদযাত্রায় সঙ্গী হতে পারে বৃষ্টি

প্রকাশিত: ৮:১৫ অপরাহ্ণ, মে ৩১, ২০১৯ | আপডেট: ৮:১৫:অপরাহ্ণ, মে ৩১, ২০১৯
ঈদযাত্রায় সঙ্গী হতে পারে বৃষ্টি

আসন্ন ঈদ-উল-ফিতরকে সামনে রেখে ইতোমধ্যে নাড়ির টানে বাড়ি ফিরতে শুরু করেছেন অনেকে। আজও (৩১ মে) সকাল থেকে বাস, ট্রেন ও লঞ্চে চেপে অনেকে রাজধানী ছেড়েছেন। এখন থেকে ঈদের আগ পর্যন্ত প্রতিদিনই বাড়তে থাকবে মানুষের ঈদযাত্রা।

এদিকে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতরের তথ্য অনুযায়ী, সারাদেশে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ বাড়ছে। বিশেষ করে শনিবার (১ জুন) সন্ধ্যার পর থেকে সারাদেশে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ অনেক বেড়ে যাবে। ফলে ঈদে বাড়ি যাওয়া যখন পুরোদমে শুরু হবে, তখন বৃষ্টিও ঝরবে পুরোদমে। বৃষ্টিতে অনেক সময় বেড়ে যায় যানজট। এ ক্ষেত্রে ঈদ-যাত্রীরা ভোগান্তিতে পড়তে পারেন বলে আশঙ্কা করছেন অনেকে।

Eid-Jatra

এ বিষয়ে ঢাকা আবহাওয়া অফিসের আবহাওয়াবিদ আরিফ হোসেন বলেন, ‘শনিবার সন্ধ্যার পর থেকে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ আরও বৃদ্ধি পাবে। আর এমন না যে, সারাদিন একটানা বৃষ্টি হবে। তবে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ভালোই থাকবে এই কয়েকদিন। স্থান ভেদে কোথাও কোথাও ২৪ ঘণ্টায় ১০০ মিলিমিটারের বেশিও হতে পারে।’

Eid-Jatra

বুধবার (২৯ মে) আবহাওয়াবিদ ওমর ফারুক বলেছিলেন, ‘আগামী মাসের (জুন) এক তারিখ থেকে বৃষ্টি বাড়বে। ১ থেকে ৫ জুন পর্যন্ত সারাদেশে বৃষ্টি বেশি থাকবে।’

আবহাওয়া অধিদফতরের তিন দিনের তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, সারাদেশে ধীরে ধীরে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ বাড়ছে। বুধবার (২৯ মে) সন্ধ্যা ৬টার পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় দেশের সাত জেলায় ৩৭ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়। বৃহস্পতিবার (৩০ মে) সন্ধ্যা ৬টার পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় দেশের ১১ জেলায় ১৭০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়। আর আজ (৩১ মে) ভোর ৬টার পূর্ববর্তী ২৪ ঘণ্টায় ১৯ জেলায় বৃষ্টিপাত হয়েছে ৩৪৩ মিলিমিটার।

Eid-Jatra

আবহাওয়াবিদ আরিফ হোসেন আরও বলেন, ‘বৃষ্টিপাত হলে তাপমাত্রা কমবে। মানুষ এতে স্বস্তি অনুভব করবে। চলাচলে হয়তো একটু ডিসকমফোর্ট (অস্বস্তি) থাকবে। তারপরও হয়তো মানুষ কমফোর্ট ফিল (স্বস্তি অনুভব) করবে। এখন কেউ যদি রাস্তায় ছাতা ছাড়া বের হয়, তাহলে তার ভোগান্তি হবেই।’

তিনি বলেন, ‘বৃষ্টিতে যানবাহন একটু ধীরে চলে ঠিক আছে। কিন্তু ঢাকার মতো তো আর মহাসড়কগুলোতে জলাবদ্ধতা হয় না।’