চরফ্যাসনে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে পৃথক ২ মামলা দায়ের

এম আবু সিদ্দিক এম আবু সিদ্দিক

ব্যবস্থাপনা সম্পাদক

প্রকাশিত: ৮:১৯ অপরাহ্ণ, মে ৩০, ২০১৯ | আপডেট: ৯:২৮:অপরাহ্ণ, মে ৩০, ২০১৯
চরফ্যাসনে অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে পৃথক ২ মামলা দায়ের

ভোলার চরফ্যাসন ফাতেমা মতিল মহিলা মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ হোসেনের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ নিয়োগ নিয়ে বাণিজ্য ও ক্ষমতার অপব্যবহার সহ নানা অভিযোগে চরফ্যাসন থানায় ৪০৬/৪২০/৫০৬ ধারায় পৃথক পৃথক অভিযোগে দুই মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ওসি সামশুল আরেফিন অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে মামলা দুটি এজাহার ভুক্ত করে দ্রুত তদন্তের দায়িত্ব দেন এস. আই আমিনুল ইসলাম কে।

বুধবার রাত ১০ টায় অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ সংক্রান্ত দায়েরকৃত মামলার বাদী উক্ত কলেজের সহকারী অধ্যাপক মোঃ ফারুক বলেন, অধ্যক্ষ মোহাম্মদ হোসেন কলেজের নিজস্ব তহবিল ব্যাংক হিসেবে না রেখে নামে বেনামে ৩০ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করেন এবং কলেজের এই তহবিলের টাকা তার নিয়ন্ত্রনাধীন আল মুইদ মাল্টিপারপাস নামে একটি কো-অপারেটিভ সংস্থা চালু করেন। উক্ত সংস্থার সভাপতি তিনি নিজেই।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় নিয়োগ বাণিজ্য সংক্রান্ত অপর মামলার বাদী উক্ত কলেজের গ্রন্থগারিক জহিরুল ইসলাম বলেন, ২০১৫ সালে উক্ত পদে নিয়োগ পেতে ২ দফায় ১০ লক্ষ টাকা দিতে অধ্যক্ষ আমাকে বাধ্য করেন। উক্ত টাকা ফেরৎ পেতে তিনি এই মামলাটি দায়ের করেন।

অধ্যক্ষ মোহাম্মদ হোসেন বলেন, আমি কলেজের নিজস্ব তহবিল আত্মসাৎ করিনি। কলেজের তহবিল নির্ধারিত ব্যাংক হিসাবে জমা রয়েছে। নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে কাহারও কাছ থেকে অর্থ গ্রহণ করিনি। সামাজিক ভাবে হেয় প্রতিপন্ন করার লক্ষে আমার বিরুদ্ধে একটি মহল পরিকল্পিত ষড়যন্ত্রে লিপ্ত।