বোরহানউদ্দিনে বিধবা নারীকে পিটিয়ে আহত

প্রকাশিত: ৮:৩৬ অপরাহ্ণ, মে ৩, ২০১৯ | আপডেট: ৮:৩৬:অপরাহ্ণ, মে ৩, ২০১৯
বোরহানউদ্দিনে বিধবা নারীকে পিটিয়ে আহত

ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার সাচড়া ইউনিয়নের বাথান বাড়ি গ্রামে বিধবা নারী রোশনারা (৫৫) বিধবা ভাতা পাওয়ার জন্য ঘুষ দিয়ে ফেরত চাওয়ার অভিযোগে ফজলু শরিফ কর্তৃক পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বুধবার সকাল ৮ টায় শরীফ বাড়িতে ঘটনা ঘটেছে বলে জানা যায়।

আহত সুত্রে জানা যায়, সাচড়া বাথান বাড়ির এলাকার শরীফ বাড়ির বিধবা নারী রোশনারা বেগম এর স্বামী মারা যাওয়ায় তিনি অসহায় ও অর্থ কষ্টে জীবন যাপন করে আসছে। বিধবা রোশনারাকে বিধবা ভাতা পাইয়ে দেওয়ার আশায় একই বাড়ির ফজলু শরিফ, পিতা আনসার শরিফ এলাকার মেম্বার জামালকে ৩০০০ টাকা ও নিজের জন্য ২০০০ টাকাসহ ৫০০০ টাকা ঘুষ নেয়। কিন্তু কোন ভাতা না পাওয়ায় বিধবা রোশনারা হতাশা নিয়ে ফজলুর কাছে ধরনা দিলে সে ঘুরাঘুরি করাতে থাকলে এক পর্যায়ে সে ঘুষের ৫০০০ টাকা ফেরত দেওয়ার জন্য জোর দাবী করলে গত বুধবার ফজলু তার নিজের ঘরে ঝাড়– দিয়ে বিধবা রোশনারা বেগমকে ব্যাপক মারধর করে রক্তাত্ব করে।

বিধবা রোশনারার আত্বচিৎকারে বাড়ির লোকজন এসে উদ্ধার করে বোরহানউদ্দিন হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করেন।
এব্যাপারে বিধবা নারী রোশনারা আরও জানান আমি একজন অসহায় নারী আমি সরকারি নিয়মে বিধবা ভাতা পাওয়ার কথা থাকলেও আমার কাছ থেকে ঘুষ নিয়ে ভাতা না দেওয়া এবং ঘুষ ফেরতের কারণে আমাকে পিটিয়ে আহত করায় প্রশাসনের কাছে সঠিক বিচার দাবী করছি।

এ ব্যাপারে ফজলু শরিফকে ঘটনার সত্যতা জানতে চাইলে তাকে না পেয়ে এলাকার মেম্বার জামাল মীরকে ঘটনার সত্যতা জানকে চাইলে তিনি জানান, বিধবা রোশনারাকে আমি বিধবা ভাতা পাওয়ার জন্য আশ্বাস দিয়েছি কিন্তু ফলজু শরিফ টাকা নিয়েছে সে সম্পর্কে আমি জানি না।