বোরহানউদ্দিনে ছাত্রী উক্তত্যকারী যুবকের কারাদন্ড

প্রকাশিত: ৮:৩৫ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৬, ২০১৯ | আপডেট: ৮:৩৫:অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৬, ২০১৯
বোরহানউদ্দিনে ছাত্রী উক্তত্যকারী যুবকের কারাদন্ড

ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলায় এক যুবককে ছাত্রী উক্তত্যার অভিযোগে কারাদন্ড দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: আ: কুদ্দূস।

বুধবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে মো: আলামিন নামে এক যুবককে ৬ মাসের কারাদন্ড দেওয়া হয়।

ছাত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে জানা যায়, অভিযোগকারী রিমা বেগম বোরহানউদ্দিন উপজেলার জ্ঞানদা বালিকা বিদ্যালয়ের ২০১৯ সালের এস.এস.সি. পরীক্ষার্থী। সে বুধবার দুপুর ১ টায় স্কুলে কোচিং শেষ করে বাড়ি ফেরার পথে পক্ষিয়া ৭নং ওয়ার্ডের মাতাব্বর বাড়ির আ: রত্তন এর ছেলে মো: আল আমিন তাকে নুরইসলাম মাতাব্বর বাড়ির দরজায় পথরোধ করে মুখ চেপে বাগনের ভিতর নিয়ে গিয়ে তাকে ইজ্জত হানি চেষ্টা করলে সে চিৎকার দিয়ে উঠলে পাশের মহিলারা এগিয়ে আসলে আলামিন দৌড়ে পালিয়ে যায় এবং আরও অভিযোগ করে মেয়ের গলায় থাকা একটি স্বর্নের চেইন সে নিয়ে যায়।

পরবর্তীতে মেয়ের মা মেয়েকে নিয়ে এলাকাবাসিসহ জ্ঞানদা বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের কাছে ঘটনা বললে প্রধান শিক্ষক মো: সোহেল হোসেন এলাকার লোকজনের সহায়তায় আল আমিনকে ধরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও থানা পুলিশকে অবহিত করলে বোরহানউদ্দিন থানা পুলিশ স্কুলে গিয়ে আসামিকে ধরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয় নিয়ে আসলে আসামি আল আমিনকে ৬ মাসের কারাদন্ড দিয়ে জেল হাজাতে প্রেরনের আদেশ দেন নির্বাহি কর্মকর্তা।

এ ব্যাপারে জ্ঞানদা বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: সোহেল হোসেন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, এই ছেলে আল আমিন ছাত্রীর প্রতিবেশি এবং একাধিকবার তাদের মধ্যে একই সমস্যায় এলাকায় মেম্বার ও গণ্যমান্য ব্যক্তিগণ সালিশ বিচার করেন। আজকে ঘটনা শোনার পর আমি তাৎক্ষনিক এলাকাবাসির সহায়তায় আটক করতে সক্ষম হই।